Back  

প্রযুক্তির বিবরণ

প্রযুক্তির নাম :ফার্টিগেশন পদ্ধতিতে স্ট্রবেরি উৎপাদন

বিস্তারিত বিবরণ : 
প্রযুক্তির বৈশিষ্ট্যসমূহ
১. ফার্টিগেশন একটি নতুন সেচ প্রযুক্তি যার মাধ্যমে পানিতে দ্রবণীয় সার যেমন-ইউরিয়া, পটাশ ইত্যাদি পানির সাথে মিশিয়ে সরাসরি গাছের শিকড় অঞ্চলে ধীরে ধীরে ফোটা ফোটা করে প্রয়োগ করা হয়।
২. ইহা এমন একটি সেচ পদ্ধতি যা পানির ট্যাংক, পানির ভাল্ব, ছাকনি, টি, মেইন লাইন, সাব-লাইন, জয়েন্টার, কানেক্টর এবং ড্রিপার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে গাছের শিকড় অঞ্চলে পানি প্রয়োগ করা হয়।
৩. সাধারণত প্রতি ১৪০ লিটার পানিতে ১ কেজি সার মিশিয়ে ফার্টিগেশন পদ্ধতিতে প্রয়োজনীয় সার ও পানি নিয়মিত সেচের মাধ্যমে গাছের শিকড় অঞ্চলে প্রয়োগ করতে হয়।
৪. ফার্টিগেশন পদ্ধতিতে ইউরিয়া ও এমপি সার চারা রোপনের ১৫দিন পর থেকে ১৫-২০ দিন পরপর ৪-৫ কিস্তিতে পানির সাথে মিশিয়ে ড্রিপ সেচের মাধ্যমে প্রয়োগ করতে হবে।
৫. এই পদ্ধতিতে প্রতি ২-৩ দিন অন্তর অন্তর ড্রিপ পদ্ধতিতে অল্প পানি সেচ প্রয়োগ করতে হয়।
৬.ভূ-উপরিস্থ পানির বাস্পায়ন রোধে এবং ফলের গুনগতমান সংরক্ষণে ধানের খড় বা প্লাষ্টিকের মালচ্ ব্যবহার করতে হবে।
৭.বর্তমানে ফার্টিগেশন পদ্ধতির যাবতীয় উপকরণ স্থানীয়ভাবে তৈরি করা সম্ভব।
৮.ষ্ট্রবেরী জলাবদ্ধতা মোটেই সহ্য করতে পারে না। তাই বৃষ্টির অতিরিক্ত পানি দ্রুত নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে হবে।
৯.সেচের পানি বাষ্পায়ন জনিত অপচয় রোধকল্পে ফসলের জমিতে সেচ সাধারণত সকালে অথবা বিকালে প্রয়োগ করতে হবে। তাছাড়া প্রচন্ড তাপমাত্রার রৌদ্রের সময় যাতে ফসলের জমিতে সেচ না দেওয়া হয় সেদিকে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।

ফার্টিগেশন পদ্ধতিতে স্ট্রবেরি উৎপাদন ছবি-১

ফার্টিগেশন পদ্ধতিতে স্ট্রবেরি উৎপাদন ছবি-২


প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলুন।
 
Back