Back  

প্রযুক্তির বিবরণ

প্রযুক্তির নাম :বছরে এক জমিতে চার ফসল ভিত্তিক ফসলধারা

বিস্তারিত বিবরণ : 

রোপা আমন-সরিষা-মুগডাল-রোপা আউশ ফসল ধারা
রোপা আমন-সরিষা-মুগ-রোপা আউশ ধান ফসল ধারাটি কৃষকের ফসল ধারা (রোপা আমন-পতিত-বোরো-পতিত) থেকে অতিরিক্ত আয় পাওয়া যায় ১,১৯,৩০৭/- টাকা। সুতরাং বাংলাদেশে যে সমস্ত এলাকায় রোপা আমন-পতিত-বোরো-পতিত ফসল ধারা রয়েছে সেই সব এলাকায় রোপা আমন-সরিষা-মুগ-রোপা আউশ ফসলধারা প্রচলন করা সম্ভব অর্থাৎ চার ফসল ভিত্তিক ফসল ধারাসমূহ কৃষিতাত্ত্বিকভাবে চাষ করা সম্ভব, এতে করে শস্য নিবিড়তা ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি পাবে। ফলে আমাদের দেশে কৃষকের আয় বৃদ্ধি পাবে এবং তা অর্থনৈতিকভাবে লাভজনক হবে। ফলে ফসলধারাটি আগামীতে ক্রমহ্রাসমান আবদি জমি থেকে বর্ধিত জনসংখ্যার জন্য খাদ্য উৎপাদনের একটি অন্যতম প্রযুক্তি হিসেবে কাজ করবে।

রোপা আমন-সরিষা-মুগডাল-রোপা আউশ ধান ফসল ধারায় অন্তর্ভুক্ত ফসলের নাম ও চাষের সময় :
ফসলের চাষের সময় (বীজ তলার সময় ছাড়া) ফসলের নাম (জাতের নাম)
রোপা আমন-(বিনা ধান-৭) সরিষা-(বারি সরিষা -১৫) মুগডাল-(বারি মুগ-৬) রোপা আউশ-(পারিজা)
জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে চারা রোপণ-অক্টোবরের ৩য় সপ্তাহে ফসল কর্তন (৯০ দিন) অক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে জানুয়ারি মাসের তৃতীয় সপ্তাহ (৮৫ দিন) ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে এপ্রিল মাসের শেষ সপ্তাহ (৬৫ দিন) মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে জুলাই মাসের তৃতীয় সপ্তাহ (৭০ দিন)

রোপা আমন-সরিষা-বোরো-রোপা আউশ ফসল ধারা
রোপা আমন-সরিষা-বোরো-রোপা আউশ ফসল ধারায় কৃষকের ফসল ধারা (রোপা আমন-পতিত-বোরো-পতিত) থেকে প্রতি হেক্টরে অতিরিক্ত আয় পাওয়া যায় ৮৭,৩৪৩/- টাকা। সুতরাং উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশে যে সমস্ত এলাকায় রোপা আমন-পতিত-বোরো-পতিত ফসলধারা রয়েছে সেই সব এলাকায় রোপা আমন-সরিষা-বোরো-রোপা আউশ ফসলধারা প্রচলন করা সম্ভব এবং উন্নত এই ফসল ধারাটি প্রবর্তন করে শস্য নিবিড়তা বৃদ্ধি করে ফসলের উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব। এর মাধ্যমে কৃষকের আয় বৃদ্ধি পাবে অর্থাৎ অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে। আগামীতে এই ফসল বিন্যাস বর্ধিত খাদ্য চাহিদা পূরণে অত্যন্ত কার্যকর প্রযুক্তি হিসেবে কাজ করবে।

রোপা আমন-সরিষা-বোরো ধান-রোপা আউশ ধান ফসল ধারায় অন্তর্ভুক্ত ফসলের নাম ও চাষের সময় :
ফসলের চাষের সময় (বীজ তলার সময় বাদে) ফসলের নাম (জাতের নাম)
রোপা আমন-(বিনা ধান-৭) সরিষা-(বারি সরিষা -১৪) বোরো ধান-(ব্রি ধান-২৮) রোপা আউশ-(পারিজা)
জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে চারা রোপণ-অক্টোবরের ৩য় সপ্তাহে ফসল কর্তন (৯০ দিন) অক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে জানুয়ারি মাসের তৃতীয় সপ্তাহ (৮০ দিন) জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে মে মাসের প্রথম সপ্তাহ (১০০ দিন) মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে জুলাই মাসের তৃতীয় সপ্তাহ (৭০ দিন)

রোপা আমন-আলু-বোরো ধান-রোপা আউশ ফসল ধারা
রোপা আমন-আলু-বোরো -রোপা আউশ ফসল ধারাটি কৃষকের ফসল ধারা (রোপা আমন – পতিত-বোরো ধান-পতিত) থেকে অতিরিক্ত আয় পাওয়া যায় ১,৭৬,৩০৪/- টাকা। সুতরাং বাংলাদেশে যে সমস্ত এলাকায় রোপা আমন-পতিত-বোরো-পতিত ফসল ধারা রয়েছে সেই সব এলাকায় রোপা আমন-আলু-বোরো-রোপা আউশ ফসল ধারা প্রচলন করা সম্ভব অর্থাৎ চার ফসল ভিত্তিক ফসল ধারাসমূহ কৃষি তাত্ত্বিকভাবে চাষ করা সম্ভব। এতে জমির ফসল নিবিড়তা ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি পাবে, কৃষকের আয় বৃদ্ধি পাবে অর্থাৎ অর্থনৈতিকভাবে লাভজনক হবে। ফলে আগামী দিন এই ফসলধারা ক্রমহ্রাসমান আবাদি জমি থেকে বর্ধিত জনসংখ্যার খাদ্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রযুক্তি হিসেবে কাজ কারবে।

রোপা আমন-আলু-বোরো ধান-রোপা আউশ ধান ফসল ধারায় অন্তর্ভুক্ত ফসলের নাম ও চাষের সময় :
ফসলের চাষের সময় (বীজ তলার সময় বাদে) ফসলের নাম (জাতের নাম)
রোপা আমন-(বিনা ধান-৭) আলু-(বারি আলু -৭) বোরো ধান-(ব্রি ধান-২৮) রোপা আউশ-(পারিজা)
জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে চারা রোপণ-অক্টোবরের ৩য় সপ্তাহে ফসল কর্তন (৯০ দিন) অক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে জানুয়ারি মাসের তৃতীয় সপ্তাহ (৮০ দিন) জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে চারা রোপণ। মে মাসের প্রথম সপ্তাহ ফসল কর্তন (১০০ দিন) মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে চারা রোপণ। জুলাই মাসের তৃতীয় সপ্তাহে ফসল কর্তন (৭০ দিন)



প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলুন।
 
Back