Back  

প্রযুক্তির বিবরণ

প্রযুক্তির নাম :ফল শোধন যন্ত্র

বিস্তারিত বিবরণ : 
বাংলাদেশে প্রচুর পরিমাণে ফল উৎপন্ন হয়। প্রধান ফলের মধ্যে আম, কলা, পেঁপে, পেয়ারা, কাঁঠাল ও আনারস ইত্যাদি রয়েছে। এ ফলগুলোর জীবনকাল খুব কম ও উচ্চ পচনশীল। যেমন আম ও কলা এ্যানথ্রাকনোস রোগের মাধ্যমে দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। পাকা আম ৭/৮ দিনের বেশী স্বাভাবিক অবস্থায় রাখা যায় না। তদ্রুপ পাকা কলা ৬/৭ দিনের বেশী রাখা যায় না। আমাদের দেশে সংগ্রহোত্তর অপচয় ২০-৩০%। এ অপচয় রোধে রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার করা হয় যা স্বাস্থ্য বা পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর। পরিপক্ক ফলের জীবনকাল বাড়ানোর ও অপচয় কমানোর জন্য রাসায়নিক দ্রব্য ছাড়া গরম পানিতে শোধন করে উক্ত উদ্দেশ্য সম্পন্ন করা যায়। এ লক্ষ্যে ফল শোধন যন্ত্র উদ্ভাবন করা হয়েছে। বৈশিষ্ট্যসমূহ :
১। বড় আকারের ফল শোধন যন্ত্রে ২ কিলোওয়াটের ১০টি বৈদ্যুতিক হিটারের মাধ্যম পানিকে গরম করা হয়।
২। ছোট আকারের ফল শোধন যন্ত্রে ২ কিলোওয়াটের ৬টি বৈদ্যুতিক হিটারের মাধ্যম পানিকে গরম করা হয়।
৩। তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের জন্য ডিজিটাল তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রক ব্যবহার করা হয়।
৪। ফল ভর্তি প্লাস্টিক ক্রেট বহনের জন্য মটর চালিত কনভেয়ার রোলার ব্যবহার করা হয়।
৫। যন্ত্রটি দিয়ে নিরবচ্ছিন্নভাবে আম শোধন করা যায়।
৬। যন্ত্রটি চালানোর জন্য ৪ জন শ্রমিকের প্রয়োজন হয়।
৭। এ য্ন্ত্র দিয়ে আমকে সুষমভাবে ৫৩-৫৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় পানিতে ৫-৭ মিনিট ডুবিয়ে শোধন করা হয়।
৮। এ য্ন্ত্র দিয়ে কলাকে সুষমভাবে ৫৩-৫৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় পানিতে ৫-৯ মিনিট ডুবিয়ে শোধন করা হয়।
৯। শোধনকৃত আম ৭-৮ দিনের পরিবর্তে ১০-১২ দিন পর্যন্ত টাট্কা থাকে এবং আমের গায়ের রং উজ্জ্বল হয়।
১০। শোধনকৃত কলা ৬-৭ দিনের পরিবর্তে ৮-১০ দিন পর্যন্ত টাট্কা থাকে এবং আমের গায়ের রং উজ্জ্বল হয়। যন্ত্রের বিবরণ ১। পানি ধারণ করার জন্য মাইল্ড স্টীল শীট দিয়ে আয়াতকার চৌবাচ্চা তৈরি করা হয় ২। পানির তাপ নিরোধের জন্য ট্যাংকের বাইরে ২৫ মিমি পুরু কর্ক শীট লাগানো হয় ৩। হিটারগুলি তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণকারী প্যানেলের সাথে যুক্ত থাকে ৪। ট্যাংকের তলায় স্থাপিত মাইল্ড স্টিলের রোলার প্রস্থ বরাবর লাগানো থাকে ৫। ০.৩৮ কিলোওয়াট ক্ষমতায় মোটর দিয়ে রোলার ও নাড়ুনি ঘোরানো হয় : ৩১১০ x ১১৭০ x ১৫৩০ মিমি (বড়) : ১৬২০ x ১১৮০ x ১৫৩০ মিমি (ছোট) চৌবাচ্চার পানি ধারণ ক্ষমতা : ১০০০ লিটার পানি (বড়) : ৪৫০ লিটার পানি (ছোট) যন্ত্রের ওজন : ৪০০ কেজি (ব্ড়) : ২৩৫ কেজি (ছোট) কার্যপ্রণালী পরিস্কার পানি দিয়ে চৌবাচ্চাটি এমনভাবে পূর্ণ করুন যেন চৌবাচ্চার উপর থেকে ১০ সেন্টিমিটার খালি থাকে। হিটারগুলি বৈদ্যুতিক তারের সাহায্যে প্যানেল বোর্ডের সঙ্গে যুক্ত করুন। পানির তাপমাত্রা বর্জায় রাখার জন্য তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রক নব ঘুরিয়ে নির্দিষ্ট তাপমাত্রা সেট করুন। বৈদ্যুতিক প্যানেল বোর্ডের সাহায্যে হিটারগুলি চালু করুন। দেড় থেকে দুই ঘন্টা পর পানি নির্দিস্ট তাপমাত্রায় ওঠে। রোলার চালানোর জন্য মোটর চালু করুন। এবার চৌবাচ্চার এক প্রান্ত থেকে ফল ভর্তি প্লাস্টিকের ঝুড়ি পানির মধ্য দিয়ে রোলারের উপর বসিয়ে দিন। ঝুড়িটি সঙ্গে সঙ্গে যন্ত্রের অন্য প্রান্তের দিকে চলা শুরু করবে। পুনরায় ফল ভর্তি ঝুড়ি রোলারের উপর বসিয়ে দিন। এভাবে অনবরত ২৫-৪৫ সেকেন্ডের ব্যবধানে ফল ভর্তি ঝুড়ি রোলারের উপর বসাতে থাকুন। অন্য প্রান্তে পৌঁছার পর ঝুড়ি পানি থেকে তুলে ফল শুকানোর জন্য রাখা প্লাস্টিক শীটের উপর ছড়িয়ে দিন। দ্রুত ফল শুকানোর জন্য বৈদ্যুতিক পাখা ব্যবহার করা যেতে পারে। শুকানোর পর যথাযথ পদ্ধতিতে ফল প্যাকিং করুন। পরীক্ষার ফলাফল কার্যক্ষমতা আমের জন্য : ১০০০ কেজি/ঘন্টা (বড়) : ৫০০ কেজি/ঘন্টা (ছোট) কলার জন্য : ৬০০ কেজি/ঘন্টা (বড়) : ৩০০ কেজি/ঘন্টা (ছোট) শোধন খরচ আমের জন্য : ০.৩১ টাকা/কেজি (বড়) : ৫০০ টাকা/কেজি (ছোট) কলার জন্য : ০.৩৮টাকা/কেজি (বড়) : ০.৬৩ টাকা/কেজি (ছোট) মূল্য : ১,৫০,০০০টাকা (বড়) : ১,০০,০০০টাকা (ছোট) ০


প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলুন।
 
Back